ঢাকা, মঙ্গলবার, ০২ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Bangla Insider

মেসির বিয়ে

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৪ জুন ২০১৭ শনিবার, ০১:০৭ পিএম
মেসির বিয়ে


৩০ জুন তারার মেলা বসতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনার রোজারিও শহরে। যারা ফুটবল দেখেন অথবা খোঁজ রাখেন তারা হয়তো বুঝতে পারছেন সেই তারাদের মধ্যমনি কে। তিনি বর্তমান বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম সেরা ফুটবলারদের একজন। বলছিলাম আর্জেন্টিনা ও বার্সেলোনা তারকা লিওনেল মেসির কথা।

আজ ২৪ জুন মেসির ৩০তম জন্মদিন। আর মাত্র ছয় দিন পর বিয়ে করতে যাচ্ছেন সময়ের অন্যতম সেরা এই তারকা। ৩০ জুন রোজারিওর সিটি সেন্টারে তার বিয়ের অনুষ্ঠান হবে। ছোটবেলার বান্ধবী আন্তোনেল্লা রোকুজ্জোকে বিয়ে করছেন পাঁচ বারের ব্যালন ডি অর জয়ী এই তারকা। বিয়েটা যে লিওনেল মেসির, তাই ইতি মধ্যে পেয়ে গেছে গত কয়েক দশকে দক্ষিণ আমেরিকার গুরুত্বপূর্ণ বিয়ের স্বীকৃতি।

পুরো আর্জেন্টিনা যেন মেসির বিয়ে নিয়ে মেতে আছে। এই অনুষ্ঠানের পরিকল্পনাকারী বারবারা দিয়েজও বেশ বিখ্যাত। আর এই অনুষ্ঠানে গান গাইবেন মেসির ঘনিষ্ঠ বন্ধু ও জাতীয় দলের সতীর্থ সার্জিও আগুয়েরোর স্ত্রী কারিনা।

মেসির জন্মস্থান আর্জেন্টিনার রোজারিও, এখানেই বেড়ে ওঠা। রোকুজ্জো তার ছোট বেলার বান্ধবী। পাঁচ বছর বয়স থেকে তারা একে অপরের পরিচিত। তবে ২০০৮ সাল থেকে জনসম্মুখে আসে তাদের বন্ধুত্ব। তাদের দুটি সন্তান রয়েছে।

অনেকেই ভাবছেন মেসির বিয়ে কিন্তু সেটা রোজারিওতে কেন। এই শহরটি যে আর্জেন্টিনার অন্যতম বিপদজনক শহর। জনসংখ্যায় আর্জেন্টিনার তৃতীয় বৃহত্তম শহর এটি। নিরাপত্তা নিয়েও শঙ্কা দেখা দিতে পারে। কিন্তু মেসি ওসব নিয়ে চিন্তিত নয়। মেসি রোজারিও তে আসলে স্বাভাবিক ভাবেই ঘোরাফেরা করেন। কিন্তু এবার যে আরও অনেক তারকা ফুটবলার আসবেন। সেটার নিরাপত্তা দিতে কতটা প্রস্তুত এই শহর। ইতিমধ্যে নগর কর্তৃপক্ষ এই উপলক্ষে বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে। তবে মেসিদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবেন মেসির ব্যক্তিগত নিরাপত্তা দলের উপর।

ভেন্যু হিসেবে রোজারিওকে বেছে নেয়ায় অনেকেই অবাক হয়েছেন। কিন্তু মেসির জন্মস্থান, তার হবু বউয়ের জন্মস্থান, রোকুজ্জোর সাথে প্রথম পরিচয় সেই ছোট্ট বয়সে, তার দুই সন্তানের জন্মস্থান সবই তো এই শহরে। তো বিয়ের জন্য এর চেয়ে ভালো জায়গা আর কোথায় হতে পারতো?



মেসি তার বাল্যকালের বন্ধুদের পাশাপাশি ২১ জন বার্সা সতীর্থকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। সুয়ারেজ, নেইমার, র‍্যাকিটিচ, বুস্কেটসরা কয়েকদিন থাকবেন সেখানে। সাবেক বার্সা সতীর্থ জাভিরও আসার আর কথা রয়েছে। আসবেন সাবেক সতীর্থ সেস্ক ফাব্রিগাস। তার আরেক বার্সা সতীর্থ জেরার্ড পিকে ও তার বান্ধবী পপ তারকা শাকিরার শুরুতে আসার কথা না থাকলেও পিকে কথা দিয়েছেন তারা আসবেন। তার ক্লাবের সকল ব্যাকরুম স্টাফ, কিটম্যান, ডাক্তার, ফিজিওথেরাপিস্টসহ লিয়াজন অফিসার পেপে কস্তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। মোটামুটি এক তারার মেলা বসতে যাচ্ছে রোজারিওতে।

গত তিন বছর মেসির কোচ ছিলেন লুইস এনরিকে। কিন্তু সদ্য সবেক বার্সা কোচকে আমন্ত্রণ জানাননি মেসি। এমনকি আমন্ত্রণ পাননি অ্যাসিস্ট্যান্ট কোচসহ ক্লাবের কোনো বোর্ড কর্মকর্তাও। এ নিয়ে কম সমালোচনাও হচ্ছে না।

মেসির আমন্ত্রিত অতিথিদের উপহার আনতে বারণ করেছেন। তবে কেও চাইলে তার দাতব্য প্রতিষ্ঠান ‘ লিও মেসি ফাউন্ডেশনে’ অর্থ দান করতে পারেন। এই প্রতিষ্ঠানটি বাচ্চাদের স্বাস্থ্য, খেলাধুলা এবং শিক্ষা ক্ষেত্রে সাহায্য করে থাকে।


বাংলা ইনসাইডার/আরএ/ডিআর